শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:৩২ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
এক বিন্দু অক্সিজেন মানুষকে বাঁচাবে, এক টুকরো স্বপ্ন শিশুকে বাঁচাবে ! শৈশব পেড়িয়ে কৈশোর দেখিনি, কালকে আমার বিয়ে! শোকের মাসে জবি সাংবাদিকদের নির্বাচন, গঠনতন্ত্র বহির্ভূত কার্যক্রমে ফলাফল স্থগিত বামনায় সাংবাদিকদের মাঝে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতার করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ চরাঞ্চল ঘুরে করোনা টিকার ফ্রি নিবন্ধন করাচ্ছেন ইউপি চেয়ারম্যান চরফ্যাশনে যুবককে ফাঁসাতে গিয়ে পুলিশ অবরুদ্ধ তৃতীয় দিনেও বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে বাড়ি ফিরেছে জবি শিক্ষার্থীরা “সেরা রাঁধুনীতে ফাষ্ট রানার্স আপ নাদিয়া নাতাশা” ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সাত কলেজের ভর্তি পরীক্ষা অক্টোবরে করোনা মোকাবিলায় মোদির মন্ত্রিসভায় রদবদল, শপথ নিলেন ৪৩ মন্ত্রী

রাত পোহালে মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন : নেতৃত্ব যাদের মধ্য থেকে

আলোরদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশিত হয়েছেঃ শুক্রবার, ২৯ নভেম্বর, ২০১৯
  • ১৯৪ বার পড়া হয়েছে
ছবি : উপরের বাঁ থেকে মহানগর উত্তরের প্রার্থী (আব্দুল কাদের খান, শেখ বজলুর রহমান, এস এ মান্নান কচি ও এম. সাইফুল্লাহ সাইফুল)। নিচের বাঁ থেকে মহানগর দক্ষিনের প্রার্থী (অ্যাডভােকেট নজিবউল্লাহ হিরু, নজরুল ইসলাম বাবু, হেদায়েতুল ইসলাম স্বপন, গাজী আবু সাঈদ ও ওমর বিন আজিজ তামিম)। -আলোর দেশ

আলোর দেশ, ঢাকা :

রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আগামীকাল শনিবার (৩০ নভেম্বর) সকাল ১১টায় একযোগে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন। এরপর ২১ ও ২২ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের ২১তম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

এরইমধ্যে সম্মেলনকে ঘিরে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করছে তৃণমূল ও পদপ্রত্যাশী নেতাকর্মীদের মাঝে। এককথায় বলতে গেলে সম্মেলনের মৌসুম চলছে সরকারি দল আওয়ামী লীগে। তবে কপাল পোড়বে আঙ্গুল ফুলে যারা কলাগাছ হয়েছেন সেইসব দুর্নীতিবাজ নেতাকর্মীদের। কারণ প্রধানমন্ত্রীর কড়া নির্দেশে এবার কমিটিতে জায়গা মিলছে না ক্যাসিনো কেলেঙ্কারি, অনুপ্রবেশকারী, ক্ষমতার অপব্যবহারকারী, বিতর্কিত, চাঁদা ও টেন্ডারবাজি এবং মাদক-সন্ত্রাসের সাথে জড়িত নেতাদের। এমনটাই জানিয়েছে দলের শীর্ষনেতারা।

ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে আসছে নতুন মুখ- এমন আভাস দিয়েছেন দলটির একাধিক নীতিনির্ধারক। নীতিনির্ধারকরা আরও জানান, ঢাকা মহানগর নতুন কমিটি গঠনের বিষয়টি খুবই গুরুত্ব সহকারে নিয়েছেন দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিগত তিন বছরে নেতাকর্মীদের সার্বিক রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড সন্তোষজনক ছিল না। তাই ব্যাপক পরিবর্তন আনা হচ্ছে ঢাকার দুই মহানগর আওয়ামী লীগের নতুন কমিটিতে। স্বাভাবিক কারণেই বর্তমান কমিটির বেশির ভাগ নেতাই বাদ পড়ার ঝুঁকিতে আছেন।

মহানগর উত্তরে আলােচনায় যারা :

আসন্ন সম্মেলনে উত্তরের সভাপতি পদে আলােচনায় রয়েছেন বর্তমান কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাদের খান। ১৯৭৫ সালে ১৫ই আগষ্টে নিহত বঙ্গবন্ধু ব্যতিত তার পরিবারের সকল সদস্যদের জন্য বনানীতে কবর নির্মান করেন তিনি। পরে এই কবরগুলি সংস্কার করে অদ্যাবধি ৪৪ বছর যাবৎ প্রধানমন্ত্রীর স্বজনদের দেখাশোনা করে আসছে কাদের খান।

আলোচনায় আছেন মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শেখ বজলুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এসএ মান্নান কচি, সাংগঠনিক সম্পাদক মােক্তার সরদার ও জহিরুল হক জিলু এবং দপ্তর সম্পাদক এম. সাইফুল্লাহ সাইফুল । এর বাইরেও বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য আবুল বাশারও মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তরে প্রার্থী হিসেবে আলােচনায় রয়েছেন।

মহানগর দক্ষিনে আলােচনায় যারা :

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের বর্তমান সাধারন সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ। তিনি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক ছাত্রনেতা ছিলেন। তিনি আসন্ন কমিটিতে সভাপতি প্রার্থী বলে জানা যায়।

আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যাডভােকেট নজিবউল্লাহ হিরু । ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি এবং যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। এছাড়া ঢাকা বার অ্যাসােসিয়েশনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন ।

নারায়ণগঞ্জ – ২ ( আড়াইহাজার ) আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবু । তিনি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতিও ছিলেন ।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হেদায়েতুল ইসলাম স্বপন। তিনি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের আহ্বায়ক ছিলেন।

আলােচনায় আছেন সুত্রাপুর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গাজী আবু সাঈদ। তিনিও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

অবিভক্ত ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি প্রয়াত আবদুল আজিজের ছেলে ওমর বিন আজিজ তামিম। তিনি বর্তমানে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এ বিষয়ে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হেদায়েতুল ইসলাম স্বপন বলেন, আশা করি মাননীয় নেত্রী যাচাই-বাচাই করে দক্ষিনে যোগ্য প্রার্থী নির্বাচন করবেন। নেত্রীর দেওয়া শুদ্ধি অভিযান আমরা এগিয়ে নিব। তার সকল আদেশ আমরা পালন করব।

সুত্রাপুর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গাজী আবু সাঈদ বলেন, যারা দুঃসময়ে রাজপথে ছিল, ত্যাগী ও সাবেক ছাত্রনেতা তাদের মধ্য থেকে নেতৃত্ব আসবে বলে আশা করছি। আর যারা ক্যসিনোকান্ডে জড়িত, বিএনপি-জামাত থেকে আগত নব্য আওয়ামীলীগার, টাকার প্রতি যাদের ললসা আছে তারা যাতে এ কমিটিতে আসতে না পারে সে দাবিও জানাচ্ছি ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© 2020 সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আলোরদেশ লিমিটেড। এই সাইটের কোনো কন্টেন্ট অনুমতি ছাড়া কপি করা বেআইনি।
প্রযুক্তি সহযোগিতায়ঃ UltraHostBD.Com
RtRaselBD