মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:৪৩ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
এক বিন্দু অক্সিজেন মানুষকে বাঁচাবে, এক টুকরো স্বপ্ন শিশুকে বাঁচাবে ! শৈশব পেড়িয়ে কৈশোর দেখিনি, কালকে আমার বিয়ে! শোকের মাসে জবি সাংবাদিকদের নির্বাচন, গঠনতন্ত্র বহির্ভূত কার্যক্রমে ফলাফল স্থগিত বামনায় সাংবাদিকদের মাঝে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতার করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ চরাঞ্চল ঘুরে করোনা টিকার ফ্রি নিবন্ধন করাচ্ছেন ইউপি চেয়ারম্যান চরফ্যাশনে যুবককে ফাঁসাতে গিয়ে পুলিশ অবরুদ্ধ তৃতীয় দিনেও বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে বাড়ি ফিরেছে জবি শিক্ষার্থীরা “সেরা রাঁধুনীতে ফাষ্ট রানার্স আপ নাদিয়া নাতাশা” ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সাত কলেজের ভর্তি পরীক্ষা অক্টোবরে করোনা মোকাবিলায় মোদির মন্ত্রিসভায় রদবদল, শপথ নিলেন ৪৩ মন্ত্রী

যে কারনে পলক-মাশরাফি একই বাইকে !

আলোরদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশিত হয়েছেঃ বুধবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৯
  • ২৫৩ বার পড়া হয়েছে

আলোর দেশ, ঢাকা :

বাইক চালাচ্ছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। পেছনে পাঠাওয়ের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ও সংসদ সদস্য ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মুর্তজা।

মঙ্গলবার রাজধানীর বনানীতে অবাক হওয়ার মতো এমন ঘটনার দেখা মিলেছে। নিরাপদ সড়ক দিবসে সচেতনতামূলক একটি প্রচারণার অংশ হিসেবে ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মুর্তজাকে নিয়ে বাইকে কিছু পথ ঘুরেছেন প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

এর আগে তারা জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) ও রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠান পাঠাও সেফটি ফার্স্ট শিরোনামে আয়োজিত অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, বছরের প্রতিটি দিন সড়ক নিরাপদ রাখতে হবে। এজন্য সবাইকে সচেতন হয়ে সতর্কতার সঙ্গে যানবাহন চালাতে সংশ্লিষ্টদের আহ্বান জানান। তিনি যাত্রীদের অ্যাপস ব্যবহারের মাধ্যমে রাইড শেয়ার করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, অফলাইনে ট্রিপ নেওয়া অত্যন্ত বিপজ্জনক।

পলক আরও বলেন, সড়ক নিরাপদ রাখতে হলে আমাদের লাগবে তিনটি ‘ই’। এডুকেশন, ইঞ্জিনিয়ারিং এবং এনফোর্সমেন্ট। সড়ক নিরাপত্তা সম্পর্কে সবাইকে এডুকেশন দিতে হবে, সড়কের প্রকৌশলগত নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে এবং আইনের প্রয়োগ করতে হবে। চালক, যাত্রী ও আইন প্রয়োগকারী সবাইকে সচেতন হতে হবে।

পাঠাও’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) হুসেইন মুহাম্মদ ইলিয়াস বলেন, আমরা ২০১৬ সালে প্রথম কাজ শুরু করি পাঠাও নিয়ে। এরপর আমরা এই রাইড শেয়ার সার্ভিস চালু করি ২০১৭ সালের দিকে। বর্তমানে আমাদের দুই লাখ রাইডার রয়েছে। এর মাধ্যমে দেশের অনেক তরুণদের জন্য কর্মসংস্থানের একটি সুযোগ তৈরি হয়েছে। শুধু তাই নয়, বর্তমানে দেশের বাইরে (নেপালে) সফলতার সঙ্গে চলছে পাঠাও।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© 2020 সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আলোরদেশ লিমিটেড। এই সাইটের কোনো কন্টেন্ট অনুমতি ছাড়া কপি করা বেআইনি।
প্রযুক্তি সহযোগিতায়ঃ UltraHostBD.Com
RtRaselBD