বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৮:০৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
এক বিন্দু অক্সিজেন মানুষকে বাঁচাবে, এক টুকরো স্বপ্ন শিশুকে বাঁচাবে ! শৈশব পেড়িয়ে কৈশোর দেখিনি, কালকে আমার বিয়ে! শোকের মাসে জবি সাংবাদিকদের নির্বাচন, গঠনতন্ত্র বহির্ভূত কার্যক্রমে ফলাফল স্থগিত বামনায় সাংবাদিকদের মাঝে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতার করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ চরাঞ্চল ঘুরে করোনা টিকার ফ্রি নিবন্ধন করাচ্ছেন ইউপি চেয়ারম্যান চরফ্যাশনে যুবককে ফাঁসাতে গিয়ে পুলিশ অবরুদ্ধ তৃতীয় দিনেও বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে বাড়ি ফিরেছে জবি শিক্ষার্থীরা “সেরা রাঁধুনীতে ফাষ্ট রানার্স আপ নাদিয়া নাতাশা” ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সাত কলেজের ভর্তি পরীক্ষা অক্টোবরে করোনা মোকাবিলায় মোদির মন্ত্রিসভায় রদবদল, শপথ নিলেন ৪৩ মন্ত্রী

ভোলায় ধ্বংস হচ্ছে ইলিশের পোনা, প্রশাসনের হস্তক্ষেপ চায় সচেতন মহল

আলোরদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশিত হয়েছেঃ রবিবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২০
  • ৪৭৬ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার:
মৎস সম্পদ ধ্বংসে মেতে উঠেছে ভোলার বিভিন্ন অঞ্চলের অসাধু মৎসব্যবসায়ীরা। তাদের কার্যাক্রমে ধ্বংস হচ্ছে দৈনিক কোটি-কোটি ইলিশের পোনা।
৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছে ইলিশ, যেখানে ২০০-২৫০ টি ইলিশের পোনায় কেজি হয়। আবার যেগুলোর সাইজ কিছুটা বড় সেগুলো ৭০টাকা দরে কেজি বিক্রি করছে যা কেজিতে পরে ৪০-৪৫ টি। এভাবে ইলিশের পোনা নষ্ট করে পলিথিন ভরে ভরে বিক্রি করছে।

রবিবার সকালে ভোলা সদর থানার অন্তর্গত তুলাতুলি ঘাট, চড়ার মাথা, দাসের হাট, কাঠির মাথা সহ আরো কয়েকটি ঘাটে এমন চিত্র দেখা গেছে। জানা যায় প্রশাসনকে বুড়োআঙুল দেখিয়ে ভোলা সদর, বোরহানউদ্দিন, লালমোহন, চরফ্যাশনসহ বিভিন্ন অঞ্চলের মৎস্য ব্যবসায়ীরা এভাবেই দৈনিক কয়েক কোটি ইলিশের পোনা ধ্বংস করছে।

ভোলা সদর থানার অন্তর্গত তুলাতুলি ঘাটে পোনা ইলিশের ছবি তুলতে গেলে এক মাছ বিক্রেতা বলেন, ‘বিভিন্ন এলাকায় প্রশাসনের সামনেই তো আমরা ঘুরে ঘুরে মাছ বেছি, এরা তো কিছু কয়না, আপনারা ছবি তুলে কি করবেন!’

যখন সরকারের নির্দেশে ইলিশ আহরনে অভিযান (মা ও ছা ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ) চলছে, ঠিক তখনি জেলেপাড়ার মানুষগুলো ইলিশের সর্বনাশা করে দিচ্ছে। এদিকে মৎসসম্পদ ধ্বংস রোধ করতে স্থানীয় প্রশাসনের কোন কার্যাক্রম চোখে পড়েনা, বলে ক্ষোভ প্রকাশ করছে শিক্ষক, সরকারি কর্মকর্তা, সাংবাদিক, রাজনীতিবিদসহ সচেতন মহল।

ভোলা সদর থানার বাসিন্দা ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ইব্রাহীম ফরাজী বলেন, ‘অবরোধ চলাকালীন সময়ে সরকার জেলে পাড়ার প্রতিটি পরিবারকে ভরনপোষণের ব্যবস্থা করে থাকে। তারপরও এভাবে ইলিশের পোনা হত্যা করলে আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মকে ইলিশের গল্প শোনাতে হবে। বাস্তবে তা দেখানো যাবেনা। আর যদি এখনই এই অসাধু, দেশদ্রোহী, মৎস্যসম্পদ হত্যাকারীদের লাগাম টেনে ধরা যায় তাহলে এদেশের মানুষ হবে ইলিশে-ভাতে বাঙালী।

আমি ভোলার জেলা প্রশাসক, এবং স্হানীয় নেতৃবৃন্দের নিকট সবিনয় অনুরোধ করছি আপনারা অতি দ্রুত এই মৎস্য সম্পদ বিনষ্টকারীদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করে আমাদের মৎস্য সম্পদ রক্ষা করুন।’

বাচ্চা ইলিশ মারার এমন ছবি তুলে ছাত্রলীগ নেতা ইব্রাহীম ফরাজী ফেসবুকে পোস্ট করলে কমেন্ট বক্সে আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগের অসংখ্য নেতৃবৃন্দ স্থানীয় প্রশাসনের কাছে এর যথাযথ ব্যাবস্থা গ্রহনের দাবি জানান।
এ বিষয়ে ভোলার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক বলেন, ‘মানুষ আসলে অমানুষ হয়ে গেছে। দেশের এই অবস্থা, তাও এরা বুঝেনা। আচ্ছা আমি এসব এলাকায় খোজ খবর নিচ্ছি।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© 2020 সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আলোরদেশ লিমিটেড। এই সাইটের কোনো কন্টেন্ট অনুমতি ছাড়া কপি করা বেআইনি।
প্রযুক্তি সহযোগিতায়ঃ UltraHostBD.Com
RtRaselBD