বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ০৭:৩৩ অপরাহ্ন

স্বাধীনতার ৭৫ বছরে পাকিস্তানের কোনো প্রধানমন্ত্রী মেয়াদ পূর্ণ করতে পারেননি

আলোরদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশিত হয়েছেঃ রবিবার, ৩ এপ্রিল, ২০২২
  • ২২ বার পড়া হয়েছে

আলোরদেশ ডেস্ক :

পাকিস্তান গত মার্চে স্বাধীন দেশ হিসেবে ৭৫ বছরে পদার্পণ করেছে; কিন্তু দীর্ঘ এই সময়ে দেশটির একজন প্রধানমন্ত্রীও সংবিধান অনুযায়ী দায়িত্ব শেষ করতে পারেননি।

আন্তর্জাতিক বিশ্লেষকদের মত অনুযায়ী, পাকিস্তানের রাজনীতিতে সেনাবাহিনী ও সর্বোচ্চ আদালতের হস্তক্ষেপ এবং রাজনীতিবিদদের চরম দুর্নীতি ও অবিশ্বাসের কারণেই পাকিস্তানের কোনো প্রধানমন্ত্রী তার মেয়াদ শেষ করতে পারেননি। সর্বশেষ প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তার দায়িত্বের মেয়াদ শেষ করবেন অনেকেই এমন আশা করলেও গতকাল পাকিস্তানের সংসদ ভেঙে দেওয়ায় ইমরানের খানের নামও দেশটির কলঙ্কিত ইতিহাসের অধ্যায়ে জায়গা করে নিচ্ছে।

উইকিপিডিয়াসহ একাধিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, পাকিস্তানের ইতিহাসে কোনো প্রধানমন্ত্রীই তার ক্ষমতার পাঁচ বছরের মেয়াদ পূর্ণ করতে পারেননি। ৭৫ বছরের ইতিহাসে পাকিস্তান মোট ২২ জন প্রধানমন্ত্রী পেয়েছে; কিন্তু একজনও পূর্ণ মেয়াদ শেষ করতে পারেননি।

তারা হলেন- দেশভাগের (উপমহাদেশ) পর পাকিস্তানের প্রথম প্রধানমন্ত্রী ছিলেন লিয়াকত আলী খান, তিনি দায়িত্ব শেষ করার আগেই গুপ্তহত্যার শিকার হন। তিনি ১৯৪৭ সালের ১৫ আগস্ট থেকে ১৯৫১ সালের ১৬ অক্টোবর পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। খাজা নাজিমুদ্দিন দায়িত্ব পালন করেন ১৯৫১ সালের ১৭ এপ্রিল থেকে ১৯৫৩ সালের ১১ আগস্ট পর্যন্ত। বগুড়ার মোহাম্মদ আলী ১৯৫৩ সালের এপ্রিলে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নিয়ে শেষ করার আগেই ১৯৫৫ সালের আগস্টে দায়িত্ব থেকে পদত্যাগ করেন। চৌধুরী মোহাম্মদ আলী ১৯৫৫ সালের ১২ আগস্ট থেকে ১৯৫৬ সালের ১২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। শেরেবাংলা হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী ১৯৫৬ সালের ১২ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নিয়ে ১৯৫৭ সালের ১৮ অক্টোবর পদত্যাগ করেন। ইব্রাহিম ইসমাইল চুন্দ্রিগার ১৯৫৭ সালের ১৮ অক্টোবর থেকে ওই বছরের ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত মাত্র দুই মাসেরও কম সময় দায়িত্ব পালনের মধ্যে তাকে ক্ষমতাচ্যুত করা হয়। ফিরোজ খান নূন ১৬ ডিসেম্বর ১৯৫৭ থেকে ৭ অক্টোবর ১৯৫৮ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। সামরিক শাসন জারির মাধ্যমে ফিরোজ খান নূনের পতন ঘটে। এরপর মাত্র ১৩ দিনের জন্য পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। জুলফিকার আলী ভুট্টো ১৪ আগস্ট ১৯৭৩ থেকে ৫ জুলাই ১৯৭৭ পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। মুহাম্মদ খান জুনেজো ২৩ মার্চ ১৯৮৫ থেকে ২৯ মে ১৯৮৮ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় ছিলেন। বেনজির ভুট্টো ২ ডিসেম্বর ১৯৮৮ থেকে ৬ আগস্ট ১৯৯০ সাল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। নওয়াজ শরিফ ৬ নভেম্বর ১৯৯০ থেকে ১৮ এপ্রিল ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত দায়িত্বে ছিলেন। মাঝে অনেক নাটকীয়তার পর বেনজির ভুট্টো ১৯৯৩ সালের অক্টোবর থেকে ৫ নভেম্বর ১৯৯৬ পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। নওয়াজ শরিফ ১৭ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৭ থেকে ১২ অক্টোবর ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। মীর জাফরুল্লাহ খান জামালি ২৩ নভেম্বর ২০০২ সালে দায়িত্ব নিয়ে ২৬ জুন ২০০৪ সালে পদত্যাগ করেন। চৌধুরী সুজাত হুসাইন ৩০ আগস্ট ২০০৪ থেকে ২৬ জুন ২০০৪ সাল পর্যন্ত দায়িত্বে ছিলেন। শওকত আজিজ ২৮ আগস্ট ২০০৪ থেকে ১৫ নভেম্বর ২০০৭ সাল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। ইউসুফ রাজা গিলানি ২৫ মার্চ ২০০৮ সালে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেওয়ার পর সুপ্রিমকোর্ট তাকে অযোগ্য ঘোষণা করলে তিনি ১৯ জুন ২০১২ সালে পদত্যাগ করেন। রাজা পারভেজ আশরাফ ২২ জুন ২০১২ থেকে ২৪ মার্চ ২০১৩ সাল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। নওয়াজ শরিফ ৫ জুন ২০১৩ সালে আবার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন কিন্তু সুপ্রিমকোর্ট তাকে অযোগ্য ঘোষণা করলে তিনি ২৮ জুন ২০১৭ সালে পদত্যাগ করেন। শহীদ খাকান আব্বাসি ১ আগস্ট ২০১৭ সাল থেকে ৩১ মে ২০১৮ সাল পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বে ছিলেন। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান গত ১৮ আগস্ট ২০১৮ সালে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পান।

শেষ পর্যন্ত ইমরান খানকেই বলা হচ্ছিল যে, তিনি পূর্ণ মেয়াদ শেষ করতে পারবেন; কিন্তু তার আগে গতকাল তার পরামর্শে পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতি সংসদ ভেঙে দিয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© 2020 সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আলোরদেশ লিমিটেড। এই সাইটের কোনো কন্টেন্ট অনুমতি ছাড়া কপি করা বেআইনি।
প্রযুক্তি সহযোগিতায়ঃ UltraHostBD.Com
RtRaselBD