বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ০৮:২৫ অপরাহ্ন

বরগুনায় মাদ্রাসাছাত্র ও হতদরিদ্রের সাথে ইফতার করে সুনাম কুড়িয়েছেন সুভাষ চন্দ্র

আলোরদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশিত হয়েছেঃ বৃহস্পতিবার, ২৮ এপ্রিল, ২০২২
  • ২৫ বার পড়া হয়েছে
বিভিন্ন মাদ্রাসার ছাত্রদের সাথে সুভাষ চন্দ্র হাওলাদার।

সোহাগ রাসিফ :

বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে বরগুনার বিভিন্ন এলাকায় অসহায়-কর্মহীন মানুষ ও মাদ্রাসা-এতিমখানায় ইফতার ও খাবার বিতরণ করছেন যুবলীগের প্রেসিডিয়াম মেম্বার সুভাষ চন্দ্র হাওলাদার। ২০ এপ্রিল থেকে নিজ নির্বাচনী এলাকা বরগুনা-২ আসনে (বামনা-পাথরঘাটা-বেতাগী) এসব কর্মসূচী পলন করেন সুভাষ চন্দ্র হাওলাদার।

প্রতিদিনের মত বুধবার (২৭ এপ্রিল) পাথরঘাটা সদর ইউনিয়নের হাতেমপুর নিজলাঠিমারা ঐতিহ্যবাহি মল্লিকবাড়ী হাফিজিয়া মাদ্রাসার সকল ছাত্রদের নিয়ে ইফতার করেন। এর আগে সোমবার ( ২৫ এপ্রিল ) পাথরঘাটা কে এম মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে অসহায়-কর্মহীন মানুষের মাঝে ইফতার সামগ্রী বিতরণ করা হয় । তার আগে বামনা রুহিতা গ্রামের মা শাহাভানু ফাউন্ডেশনে ইফতার বিতরণ করেন। শুরুতে বামনা উপজেলার ডৌয়াতলা ইউনিয়নের উত্তর কাকচিড়া মোতাহার মিয়া বাড়ি হাফেজিয়া মাদ্রাসার সকল শিক্ষক ও ছাত্রদের সাথে ইফতার ও দোয়া মোনাজাত করেন সুভাষ চন্দ্র হাওলাদার।

এসময় বামনা-বেতাগী-পাথরঘাটা উপজেলার বিভিন্ন ইউনিটের আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে মাদ্রাসায় হাফেজ ছাত্র শিক্ষকের সাথে এক মাঠে বসে ইফতার করায় সুনাম কুড়িয়েছেন সুভাষ চন্দ্র। স্থানীয়রা জানিয়েছেন তিনি সর্বদাই ধর্ম বর্ন নির্বিশেষে বামনা বেতাগী পাথরঘাটার যেকেন মানুষের পাশে দাড়ান।

পাথরঘাটা কে এম মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে অসহায়-কর্মহীন মানুষের মাঝে ইফতার ও খাবার বিতরন।

এক মাদ্রাসা শিক্ষক আলোর দেশকে বলেন, সুভাষ মিয়া এত বড় নেতা। আবার হিন্দু হয়েও যেভাবে মুসলমানদের সাথে মিশেন, পাশে দাড়ান এটা সবায় পারেনা। ধর্ম বর্ন নির্বশেষে মানুষের জন্য কিছু করার মন আছে তার।

এবিষয়ে সুভাষ চন্দ্র হাওলাদার আলোর দেশকে বলেন, পবিত্র মাহে রমজানের মাস, মুসলমানদের জন্য একটি পবিত্র মাস। এই পবিত্র মাসে আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা ও বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষ থেকে সপ্তাহব্যাপী বিভিন্ন মাদ্রাসা ও হতদরিদ্র মানুষের মাঝে খাবার ও ইফতার বিতরন করেছি। এসব মানুষের সাথে নিজে স্বশরীরে নিয়মিত ইফতার করছি, এটা আমার বড় পাওয়া।

সুভাষ চন্দ্র আরও বলেন, আমার কাছে ধর্ম বর্ণ ভেদাভেদ নাই। আমার মায়ের চাওয়া ছিল যাতে আমি মানুষের জন্য কাজ করতে পারি। সারাজীবন মানুষের কল্যাণে কাজ করে যেতে চাই এবং সৎভাবে জীবনযাপন করার দোয়া চাই।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© 2020 সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আলোরদেশ লিমিটেড। এই সাইটের কোনো কন্টেন্ট অনুমতি ছাড়া কপি করা বেআইনি।
প্রযুক্তি সহযোগিতায়ঃ UltraHostBD.Com
RtRaselBD