শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৩৯ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
এক বিন্দু অক্সিজেন মানুষকে বাঁচাবে, এক টুকরো স্বপ্ন শিশুকে বাঁচাবে ! শৈশব পেড়িয়ে কৈশোর দেখিনি, কালকে আমার বিয়ে! শোকের মাসে জবি সাংবাদিকদের নির্বাচন, গঠনতন্ত্র বহির্ভূত কার্যক্রমে ফলাফল স্থগিত বামনায় সাংবাদিকদের মাঝে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতার করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ চরাঞ্চল ঘুরে করোনা টিকার ফ্রি নিবন্ধন করাচ্ছেন ইউপি চেয়ারম্যান চরফ্যাশনে যুবককে ফাঁসাতে গিয়ে পুলিশ অবরুদ্ধ তৃতীয় দিনেও বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে বাড়ি ফিরেছে জবি শিক্ষার্থীরা “সেরা রাঁধুনীতে ফাষ্ট রানার্স আপ নাদিয়া নাতাশা” ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত সাত কলেজের ভর্তি পরীক্ষা অক্টোবরে করোনা মোকাবিলায় মোদির মন্ত্রিসভায় রদবদল, শপথ নিলেন ৪৩ মন্ত্রী

প্রচণ্ড শীতে কম্বল নিয়ে অসহায় মানুষের পাশে ইউএনও মমতাজ

আলোরদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশিত হয়েছেঃ রবিবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ১২৪ বার পড়া হয়েছে


আলোর দেশ, ঢাকা :

অজোপাড়া গাঁয়ের এক জোড়া চোখ-আশাতুর দৃষ্টিতে ঘন কুয়াশার মাঝেই খুঁজে ফিরছেন সূর্যালোক। সেই চোখ গুলো হয়তো কোনো কৃষকের, হয়তো কোনো শ্রমিকের কিংবা কোনো গৃহিনীর। ভরা শীতের এই মৌসুমে গ্রামের পরিচিত দৃশ্য।

সারাজীবন লড়ে যাচ্ছেন জীবনযুদ্ধে। আজ কি তবে হেরে যাবেন তীব্র শীতের কাছে! এমন অনেক শীতার্ত মানুষের হাড়ের কাঁপুনি আমাদের কানে প্রতিধ্বনিত হয় নিয়ত। এরকম পরিবারের পাশে শীতবস্ত্র নিয়ে দাঁড়িয়েছেন রূপগঞ্জের ইউএনও মমতাজ বেগম। আর এতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক নেটিজেনদের কাছে প্রশংসায় ভাসছেন তিনি।

এদিকে , গত বুধবার ও বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতে তিনি রূপগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে হেটে হেটে অসহায় দরিদ্রদের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন।

এরই মধ্যে বিভিন্ন সেবামূলক কাজের মাধ্যমে রূপগঞ্জ বাসীর মন জয় করেছেন তিনি।

রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মমতাজ বেগম এ বিষয়ে বলেন, ‘সামাজিক সহযোগিতামূলক কাজগুলো সবসময় আমাকে টানে। অনেক আগে থেকেই আমি সামাজিক কাজে অংশগ্রহণ করে আসছি। এর অংশ হিসেবে সম্পূর্ণ নিজ উদ্যোগে রূপগঞ্জ এলাকার শীতার্ত পরিবারের হাতে কম্বল তুলে দিয়েছি। ভবিষ্যতেও যতটুকু পারি এই ধারা অব্যাহত রাখার চেষ্টা করবো ইনশাআল্লাহ।’

তিনি আরো বলেন, ’প্রচণ্ড শীতে ছিন্নমূল ও অসহায় মানুষকে একটা করে কম্বল দিতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। এই শীতে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো আমার দায়িত্ব বলে আমি মনে করি। যে কারণে প্রচণ্ড শীতেও আমি ঘরে বসে থাকতে পারিনি, কম্বল নিয়ে বাসা থেকে বের হয়ে গেছি।

এদিকে রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মমতাজ বেগমের এমন উদ্যোগের প্রশংসা করছেন কম্বল পাওয়া অসহায় মানুষ সহ অন্যরা। তারা বলেন, ‘ অন্যরাও যদি তার মতো করে এগিয়ে আসে তাহলে গরীবদের আর কষ্ট হবে না।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© 2020 সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আলোরদেশ লিমিটেড। এই সাইটের কোনো কন্টেন্ট অনুমতি ছাড়া কপি করা বেআইনি।
প্রযুক্তি সহযোগিতায়ঃ UltraHostBD.Com
RtRaselBD