রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৭:১১ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতা হলেন ভোলার রায়হান শিল্পী তাহেরা চৌধুরীর প্রয়াণ দিবস, ৩০০ শিশুকে ছবি আঁকার উপকরণ বিতরণ জিয়া-মোস্তাকচক্র চার নেতাকে হত্যা করে এনেছে আরেকটি কালো অধ্যায় : ড. কামালউদ্দীন এমন কবি-প্রকাশক কি আর ফিরে আসবেন? : কামালউদ্দীন আহমেদ বিইউবিটিতে ২য় বারের মত আইসিপিসি এশিয়া-ঢাকা প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার সমাপ্তি বিধবা নারীর জমি দখলের অভিযোগে ব্যাংকের পরিচালককে আইনি নোটিশ আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬ তম জন্মদিন রিকশা থেকে পড়ে জবি ছাত্রীর মৃত্যু, বন্ধু রিমান্ডে মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা হলেন রাজ গৌরীপুরের গোলাম মোস্তফা বাঙ্গালীর ফিনিক্স পাখি শেখ হাসিনা

ছাত্রদলের কাউন্সিল : তৃণমূল ও রাজপথ বিবেচনায় এগিয়ে জবির সাদিক

আলোরদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশিত হয়েছেঃ শনিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ৬৩৫ বার পড়া হয়েছে
সাদিকুর রহমান সাদিক

আলোর দেশ ডেস্ক :

নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে ১৪ সেপ্টেম্বর (শনিবার) বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ৬ষ্ঠ কেন্দ্রীয় কাউন্সিল হওয়ার কথা থাকলেও তা এখন আদালতে আটকে আছে। ২৭ বছর পর ছাত্রদলের এ কাউন্সিলকে ঘিরে প্রার্থীরা ছুটছেন তৃণমূলের দ্বারে দ্বারে। দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতিও।

ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহকালে সাদিকুর রহমান সাদিক

সারা দেশের ১১৭টি ইউনিটের (জেলা ও বিশ্ববিদ্যালয়) ৫৮০ জন কাউন্সিলর এবার সরাসরি ভোটে তাদের নেতৃত্ব নির্বাচিত করবেন।দুই শীর্ষ পদে (সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক) ২৮ জন ছাত্রনেতা ভোটযুদ্ধে অংশ নিচ্ছেন। ২ সেপ্টেম্বর চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হওয়ার পরদিন থেকেই প্রার্থীরা কাউন্সিলদের কাছে যেতে শুরু করেন।

কিন্তু কাউন্সিলররা প্রার্থীদের বিগত দিনের কর্মকাণ্ড নিয়ে মূল্যায়ন করা শুরু করেছেন। রাজপথে কোন প্রার্থী সক্রিয় ছিলেন তাও বিচার করছেন কাউন্সিলররা। তৃণমূল নেতাকর্মীদের খোঁজ-খবর নেয়া ও রাজপথের সক্রিয়তা বিবেচনায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক সাদিকুর রহমান সাদিক কাউন্সিলরদের আস্থা অর্জন করেছেন। তিনি ছাত্রদলের ৬ষ্ঠ কেন্দ্রীয় কাউন্সিলে সাধারন সম্পাদক পদপ্রার্থী ।

বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে সারাদেশের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীদের খোঁজখবর নিয়েছেন সাদিকুর রহমান। ইতোমধ্যে তিনি দেশের বিভিন্ন জেলায় সফর দিয়ে কাউন্সিলরদের দ্বারে দ্বারে গিয়েছেন। তাকে কাছে পেয়ে উজ্জীবিত তৃণমূলের কাউন্সিলররা।

নেতাকর্মীদের সাথে সাদিকুর রহমান সাদিক

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের ব্যানারে তিনি প্রতিটি প্রোগ্রামে সক্রিয় ভুমিকা পালন করেন। ২০১৭ সালের ৮ জুন রাতের আঁধারে খালেদা জিয়ার নাম সংবলিত জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ঘোষণার নামফলক ভেঙে সরিয়ে ফেলে ছাত্রলীগ। পরদিন ৯ জুন এর প্রতিবাদ জানিয়ে রফিক-বিপ্লব-সাদিকদের নেতৃত্বে ক্যাম্পাসে ছাত্রদল বিক্ষোভ মিছিল করে এবং নামফলক পুনঃস্থাপনের জন্য প্রশাসনকে ২৪ ঘণ্টা আল্টিমেটাম দেওয়া হয়। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. নূর মোহাম্মদের মধ্যস্থতায় তা পুনঃস্থাপিত হয়। খালেদা জিয়ার নামফলক ভেঙে তা পুনঃস্থাপিত করার নজির কোন সরকারি প্রতিষ্ঠানে নেই বললেই চলে। সাদিকদের মত চৌকশ নেতৃত্বের ফলেই যা সম্ভব হয়েছে।

কারাভোগের সময় সাদিকুর রহমান সাদিক

ওয়ান ইলেভেন থেকে সক্রিয় এ নেতার বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ মামলা রয়েছে। ২০টির অধিক রাজনৈতিক মামলা রয়েছে তার বিরুদ্ধে। আন্দোলনে সক্রিয় থাকার জন্য সরকারদলীয় নেতাকর্মীদের কাছে নির্যাতনের শিকার হতে হয়েছে তাকে। কারা নির্যাতিত এ নেতাকে নিয়ে আশাবাদী ছাত্রদলের তৃণমূলের নেতাকর্মী।

রানৈতিক মামলায় গ্রেফতারকৃত সাদিকুর রহমান সাদিক

তৃণমূল নেতাকর্মীদের কাছে কেমন সারা পাচ্ছেন জানতে চাইল সাদিকুর রহমান সাদিক বলেন, “সারাদেশে ১১৭টি ইউনিটের ৫৮০ জন কাউন্সিলরদের কাছে পৌঁছানোর জটিল কাজটি এরই মধ্যে আমি সম্পন্ন করেছি। এরই মধ্যে অনেকের সঙ্গে দেখা হয়েছে, কথা হয়েছে। তাদের মনে আমাকে ঘিরে অনেক প্রত্যাশা। আমি নির্বাচিত হলে, তাদের প্রত্যাশা অনুয়াযী কাজ করবো।”

তিনি আরও বলেন,“প্রতিষ্ঠান দেখে নয়, রাজপথে কার ত্যাগ বেশি ছিল, কে বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছিল তা বিবেচনা করেই কাউন্সিলররা ভোট দিবেন বলে আমার অনুরোধ থাকবে।”

পার্টি অফিসে নেতাকর্মীদের সাথে সাদিকুর রহমান সাদিক

সাদিকুর রহমান সাদিক মাদারীপুর জেলার কালকিনি থানার নতুন আনডার চর গ্রামের মোয়াজ্জেম হোসেন ও সাফিয়া বেগমের সন্তান। পারিবারিক সুত্রেই তিনি বিএনপি’র রাজনীতির সাথে যুক্ত। তিনি সকলের কাছে দোয়াপ্রার্থী।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© 2020 সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আলোরদেশ লিমিটেড। এই সাইটের কোনো কন্টেন্ট অনুমতি ছাড়া কপি করা বেআইনি।
প্রযুক্তি সহযোগিতায়ঃ UltraHostBD.Com
RtRaselBD