বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:১১ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
জবিতে লিফট ছিড়ে আটকে যায় শিক্ষার্থীরা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী আর নেই, রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক দ্বিতীয় ক্যাম্পাস প্রকল্পে কেরানীগঞ্জের চেয়ারম্যানের বাধার অভিযোগ, ১০ দাবিতে উত্তাল জবি জবি শিক্ষার্থীর গায়ে পানির ছিটা, লেগুনা মালিককে প্রক্টরের জরিমানা গুম হওয়া বাবাকে ফিরে পাওয়ার আকুতি জবি শিক্ষার্থীর কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক হলেন জবির নাহিদ মনগড়া সংবাদ প্রচারের অভিযোগে দেশ রুপান্তরকে ছাত্রলীগের আইনি নোটিশ শেখ হাসিনার পদ্মাসেতু; দক্ষিনাঞ্চলবাসীর এবারের ঈদ অনেক নিরাপদ-আনন্দময় : সুভাষ চন্দ্র বানবাসী মানুষের জন্য ১৭২০ টন চাল, আড়াই কোটি টাকা বরাদ্দ ডলারের বিপরীতে আবারও মান কমলো টাকার

গুম হওয়া বাবাকে ফিরে পাওয়ার আকুতি জবি শিক্ষার্থীর

আলোরদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশিত হয়েছেঃ রবিবার, ১৪ আগস্ট, ২০২২
  • ১৫ বার পড়া হয়েছে
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সাবিত সিয়াম।

জবি প্রতিনিধি :

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) নাট্যকলা বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী সাবিত সিয়াম তার বাবাকে ফিরে পেতে প্রানপনে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। গুম হওয়া বাবাকে ফিরে পেতে সংবাদ সম্মেলনে হারানো বাবাকে ফিরে পাওয়ার আকুতি জানিয়েছেন সিয়াম।

গতকাল (শনিবার) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারের সামনে এক সংবাদ সম্মেলন এসব কথা বলেন সিয়াম।

সংবাদ সম্মেলনে সিয়াম বলেন, দেড়বছর আগে তার বাবা মো. সোলায়মান আলী তালুকদার নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা থেকে নিখোঁজ হন। দীর্ঘ দেড় বছর পরও বাবার সন্ধান না পেয়ে সিয়াম অভিযোগ করেন, তার বাবাকে গুম করা হয়েছে। তার বাবাকে ফিরে পেতে চান তিনি। সেই সঙ্গে সিয়াম নিজের জীবন ও পরিবারের সকলের নিরাপত্তাও চেয়েছেন প্রশাসনের কাছে।

সংবাদ সম্মেলনে এ শিক্ষার্থী বলেন, আমার বাবা ঢাকার মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের সহকারী সচিব ছিলেন। ‘চাকরি থেকে অবসরে যাওয়ার সময় একটি ফ্ল্যাট বন্ধক নেওয়ার জন্য বাবার সাথে মাসুদ আলম মোল্লার পরিচয় হয়। এরপর বাবা মাসুদ আলম মোল্লাকে ফ্ল্যাট বাবদ পাঁচ লাখ টাকা দেন। পরবর্তীতে তিনি বাবার পেনশনের ৩৭ লাখ টাকা সুচতুরভাবে ধার নেন। বাবা টাকা ফেরত চাইলে দুটি ভুয়া চেক প্রদান করেন। পরে এ বিষয় নিয়ে তিনি বাবাকে হুমকি দেন।’

সিয়াম আরও বলেন, ‘বাবা আমার সৎ মা মাহফুজা বেগমকে তালাক দেন। এ বিষয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে মাহফুজা বেগম কৌশলে সৎ বোন ফারিয়া তালুকদার দ্বারা বাবাকে নারায়ণগঞ্জে নিয়ে নির্যাতন চালান। পরবর্তীতে মাসুদ ও মাহফুজা পূর্বপরিকল্পিতভাবে আমার বাবাকে গুম করে। এছাড়াও আমাদের পরিবারকে নানা ধরনের হুমকি দেয়।’

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগের এ শিক্ষার্থী বলেন, ‘বাবাকে গুমের ঘটনায় নারায়ণগঞ্জ আদালতে নিজে বাদী হয়ে মামলা দায়ের করি। বিষয়টি পিবিআইকে তদন্তের দায়িত্ব দিলেও তদন্ত কর্মকর্তা আসামি কর্তৃক প্রভাবিত হয় এবং আমার বাবা পাগল হয়ে হারিয়ে গিয়েছেন বলে প্রতিবেদন দাখিল করে। কিন্তু আমার বাবা পঙ্গু অবস্থায় করোনাকালীন সময়ে কি করে হারিয়ে যায়? সব ঘটনা শুনে, দেখে আমরা নিশ্চিত হলাম তাকে গুম করা হয়েছে। আমার বাবাকে জীবিত ফেরত চাই। আমার পরিবারের সকলের নিরাপত্তা চাই প্রশাসনের কাছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© 2020 সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত আলোরদেশ লিমিটেড। এই সাইটের কোনো কন্টেন্ট অনুমতি ছাড়া কপি করা বেআইনি।
প্রযুক্তি সহযোগিতায়ঃ UltraHostBD.Com
RtRaselBD